Change privacy settings
বিনোদন খবর

নিষিদ্ধ হওয়ার খবরে চিন্তিত নন চমক

ছোট পর্দার অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমককে তিন মাসের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ডিরেক্টরস গিল্ড। সোমবার (২১ আগস্ট) দুপুরে ডিরেক্টরস গিল্ড বাংলাদেশ-এর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়। 

আগামী পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে নিষেধাজ্ঞার কার্যক্রম শুরু হয়ে পরবর্তী তিন মাস পর্যন্ত চলমান থাকবে। এরমধ্যেই তার যাবতীয় শুটিং সম্পন্ন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তবে নিষেধাজ্ঞার এই খবরে চিন্তিত নন চমক। তার ভাষ্য, ‘ডিরেক্টরস গিল্ডের সিদ্ধান্ত আমার কাজে প্রভাব ফেলবে না। অন্য সব সংগঠন আমার সঙ্গেই আছে। একটি সংগঠন ব্যক্তিগতভাবে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে পারে না।’

এই অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘ডিরেক্টরস গিল্ডের কয়েকজন যারা কখনো কাজই করে না তারা বসে বসে ব্যক্তিগত একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ব্যক্তিগত আক্রাশ থেকে এ ধরনের সিদ্ধান্ত। অন্য সংগঠন আমার ঝামেলা খুঁজে পাচ্ছে না সেখানে ডিরেক্টরস গিল্ডের সমস্যা কী? এ ধরনের সিদ্ধান্তে আমার কিছু যায় আসে না। অভিনয় শিল্পী সংঘ এবং অন্য সংঘের প্রতি আমার আস্থা আছে। তারা আমার সাথে আছেন। আমার সাথে যেটা হচ্ছে এগুলো ব্যক্তিগত ক্ষোভ থেকে।’

চমক বলেন, ‘আমাকে অভিনয় শিল্পী সংঘ নিষিদ্ধ করতে পারে। নিষিদ্ধ করার ডিরেক্টরস গিল্ড কে? ডিরেক্টরস গিল্ড দেশের বড় আদালত নয়। এটা নিয়ে সামনে যদি তারা বাড়াবাড়ি করে, কাজে বিরক্ত করে তাহলে পদক্ষেপ নেব।’

আরও পড়ুন- নাটকে নিষিদ্ধ হলেন চমক

প্রসঙ্গত, ‘শ্বশুরবাড়িতে প্রথম দিন’ নাটকের দ্বিতীয় দিনের শুটিংয়ে তরুণ অভিনেত্রী রুকাইয়া জাহান চমকের বিরুদ্ধে শুটিং সেটে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ ওঠে। পরে এ নিয়ে থানা-পুলিশ, পাল্টাপাল্টি অভিযোগ উঠলে বিষয়টি নিয়ে মীমাংসায় বসে নাটকপাড়ার তিন অভিভাবক সংগঠন। বৈঠকে চমকের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে আর্থিক ক্ষতিপূরণসহ চারটি শাস্তি দেয় সংগঠনগুলো।

যদিও এ সিদ্ধান্তের সঙ্গে তখন দ্বিমত পোষণ করে নাট্য নির্মাতাদের সংগঠন ডিরেক্টরস গিল্ড। তারা দাবি জানায়, শুধু আর্থিক ক্ষতিপূরণ নয় চমককে নাটকে নিষিদ্ধ করতে হবে। তার আলোকেই সংগঠনটির পক্ষ থেকে আজ এই ঘোষণা এলো।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Discover more from ঝিনেদা টিভি

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading