Change privacy settings
অর্থনীতিসর্বশেষ

গদখালীতে ৩ কোটি টাকার ফুল বিক্রি

নতুন বছরকে কেন্দ্র করে গত তিন-চার দিনে ফুলের রাজধানীখ্যাত যশোরের গদখালী ফুলের বাজারে প্রায় তিন কোটি টাকার ফুল বিক্রি হয়েছে। তবে রোববার (৩১ ডিসেম্বর) শেষ বাজারে ফুলের সরবরাহ ভালো থাকলেও দাম কিছুটা কম। গত তিন দিনের তুলনায় আজকের বাজারে ফুলের দাম ১ থেকে ৩ টাকা কম ছিল বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

সরেজমিনে রোববার সকালে গদখালী ফুলের বাজার ঘুরে দেখা যায়, নতুন বছরের আগের দিন প্রায় সব ধরনের ফুলের আমদানি ছিল চোখে পড়ার মতো। নতুন বছরে দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ফুল কিনতে এসেছেন ব্যবসায়ীরা। কেউ মোটরসাইকেলে আবার কেউ বাসে করে ফুল নিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন জেলায়।

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তিন দিন আগে গোলাপ ফুল এ বাজারে বিক্রি হয়েছে প্রতি পিস ৫-৬ টাকা করে। তবে রোববার গোলাপ ফুল বিক্রি হয়েছে প্রতি পিস ৩-৪ টাকা করে। জারবেরা ফুল তিন দিন আগে প্রতি পিস বিক্রি হয় ১৪-১৫ টাকা করে তবে রোববার বিক্রি হয়েছে ১০-১৩ টাকা করে। ৫-৭ দিন আগে গাধা ফুল প্রতি হাজার বিক্রি হয়েছে ৭০০-৮০০ টাকায়। রোববার গাধা ফুল প্রতি হাজার বিক্রি হয়েছে ৩০০-৬০০ টাকায়। রজনীগন্ধা স্টিকের তিন দিন আগে দাম ছিল প্রতি পিস ৭-৮ টাকা, রোববার বিক্রি হয়েছে ৪-৬ টাকা। অন্যান্য ফুলের মধ্যে রড ফুল প্রতি ৫ আঁটি ১০০ টাকা, গ্লাডিওলাস বিক্রি হয়েছে প্রতি পিস ৮-২২ টাকা, জিপসি প্রতি আঁটি ১০০ টাকা, চন্দ্রমল্লিকা প্রতি পিস ২-৩ টাকা।

ঝিকরগাছার কটুয়াপাড়া গ্রামের ফুল ব্যবসায়ী আবু সাইদ প্রায় পাঁচ হাজার গোলাপ ক্রয় করেছেন নওগাঁয় পাঠানোর উদ্দেশ্যে। তিনি বলেন, গত তিন দিন ভালো বেচাকেনা হয়েছে, তবে আজকে শেষ বাজারে ফুলের দাম একটু কম ছিল। প্রতি পিস গোলাপ বিক্রি করেছি ৩-৪ টাকা করে।

পানিসারা গ্রামের ফুল ব্যবসায়ী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আজকের বাজারে রজনীগন্ধা এবং জারবেরা ফুল নিয়ে এসেছিলাম। রজনীগন্ধা স্টিক বিক্রি করেছি প্রতি পিস ৩-৪ টাকা এবং জারবেরা বিক্রি করেছি ১০-১১ টাকা। তবে তিন দিন আগে জারবেরা বিক্রি হয়েছে ১৫-১৬ টাকা।

সৈয়দপাড়া গ্রামের ফুলচাষি আতর আলী বলেন, গত তিন-চার দিনের তুলনায় নববর্ষের আগের দিন অর্থাৎ আজকের বাজারে ফুলের দাম ১-৩ টাকা কম। তবে ফুলের আমদানি ভালো। মূলত অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে ফুল এর আগের দিনগুলোতে চলে গেছে। এজন্য হয়ত আজকের বাজারে দাম একটু কম।

বগুড়া থেকে ফুল কিনতে আসেন নাসির উদ্দীন। তিনি বলেন, নতুন বছর উপলক্ষ্যে ফুল কিনতে গদখালী এসেছি। ভালো দামে ফুল কিনতে পেরেছি। পরিস্থিতি ভালো থাকলে ভালো দামে ফুল বিক্রি করতে পারব বলে আশা করছি।

গদখালী ফুলচাষি কল্যাণ সমিতির সভাপতি আব্দুর রহিম বলেন, গত চার দিনে গদখালী বাজারে প্রায় তিন কোটি টাকার ফুল বিক্রি হয়েছে। বাজারের চাষি ও ব্যবসায়ীরা খুশি। তবে রোববারের বাজারে দাম একটু কম ছিল, সরবরাহ ভালো ছিল। সামনের উৎসবগুলোকে কেন্দ্র চাষি ও ব্যবসায়ীরা আরও ভালো দাম পাবে বলে আমরা আশাবাদী।

তিনি আরও বলেন, যশোরের প্রায় ৬ হাজার কৃষক এ ফুল চাষের সঙ্গে জড়িত। দেশের মোট ফুলের চাহিদার ৭০ শতাংশ এ গদখালী থেকে সরবরাহ করা হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button

Discover more from ঝিনেদা টিভি

Subscribe now to keep reading and get access to the full archive.

Continue reading